Home আকাশলীনা টয়া কে নিয়ে কিছু কথা

টয়া কে নিয়ে কিছু কথা

696
0
SHARE

টগবগে টয়া

 

আট বছর ধরে বিনোদন জগতে কাজ করে যাচ্ছেন মডেল ও অভিনয়শিল্পী টয়া। মডেলিং এবং অভিনয়ে বেশ দুরন্ত টয়া। বৈচিত্র্যময় চরিত্রে অভিনয় করে প্রশংসিত হয়েছেন বহুবার। বর্তমানে অভিনয়ের পাশাপাশি প্রযোজক হিসেবেও কাজ করবেন বলে জানিয়েছেন তিনি। এবারের আকাশলীনা আয়োজনে মডেল এবং অভিনেত্রী টয়াকে নিয়ে লিখেছেন তৃষা আক্তার …

 

 

নাটক নিয়েই এখন বেশি ব্যস্ততা চলছে মডেল এবং অভিনেত্রী টয়ার। গেল ঈদে বেশকিছু টিভি এবং ইউটিউব চ্যানেলের নাটকে অভিনয় করেছেন তিনি। এর মধ্যে ‘টান’, ‘ডাক হিরো’ এবং ‘সাইজ ৪২’ নাটকগুলো প্রশংসিত হয়েছে। ঈদের পর টয়া ব্যস্ত হয়েছেন ওয়েব সিরিজ নিয়ে। তা ছাড়া খুব শিগ্গিরই একটি বিগ বাজেটের মিউজিক ভিডিওতেও তাকে দেখা যাবে বলে জানান টয়া। প্রযোজক হিসেবেও কাজ শুরু করবেন টয়া। এ প্রসঙ্গে টয়া বলেন, আমি সবসময় চেয়েছি নতুন কিছু করতে। সেই ভাবনা থেকেই প্রযোজনায় আসা। ঠিক করেছি অভিনয়ের পাশাপাশি প্রযোজনা করব। এতে আমাদের ইন্ডাস্ট্রির জন্য ভালো হবে, সঙ্গে আমার ব্যবসাও হলো। আমি এখনো প্রাথমিক পর্যায়ে কনটেন্ট যাচাই-বাছাই করছি। এখন তো দর্শক ভাগ হয়ে কিছু সংখ্যক টিভিতে আর কিছু সংখ্যক দর্শক ঝুঁকছে ডিজিটাল প্লাটফর্মে। চেষ্টা করছি, যত দ্রæত সম্ভব যেকোনো মাধ্যমে প্রযোজনায় আসার। সবাই দোয়া করবেন যেন এই জায়গায় সফল হতে পারি।

বেশ কয়েকটি ওয়েব সিরিজে কাজ করেছেন টয়া। ওয়েব সিরিজে কাজ করতে কেমন লাগে জানতে চাইলে টয়া বলেন, ওয়েব সিরিজের যাত্রা আমাদের দেশে খুব বেশিদিনের নয়। অল্পসময়ে বেশ ভালো জায়গা দখল করেছে এই নতুন মাধ্যম। এখন টিভি নাটকের চেয়ে বেশি পরিমাণে নির্মিত হচ্ছে ওয়েব সিরিজ। ভালো বাজেট, ডিজিটাল প্ল্যাটফর্মের দর্শক চাহিদা ও গ্রহণযোগ্যতার বিষয় বিবেচনা করে এ সব ওয়েব সিরিজে অভিনয় করছে জনপ্রিয় তারকারাও। আর এখন সবকিছুই ফোনে পাওয়া যায়। গ্রামের মানুষও এখন নাটক সিনেমা মিউজিক ভিডিও দেখে মোবাইলে। দর্শক দেখছে বলেই এই ওয়েব মাধ্যম আরো বড়ো হবে।

গত বছর টয়া অভিনীত ‘বেঙ্গলি বিউটি’ চলচ্চিত্র মুক্তি পেয়েছিল। এ ছাড়া স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্রেও দেখা গেছে টয়াকে। তবে এখন কোনো চলচ্চিত্রে অভিনয় করছেন না টয়া। চলচ্চিত্রে কাজ করার ব্যাপারে একটু ভেবে-চিন্তে কাজ করবেন টয়া। মানসম্মত গল্প পেলে অভিনয় করবেন। মানহীন কাজ করে দর্শকের ভালোবাসা হারাতে চান না তিনি। ভালো কাজের জন্য ধৈর্য ধরে অপেক্ষা করছেন। টয়া বলেন, মানসম্মত গল্প এবং গল্পে চরিত্র কতটুকু গুরুত্ব পাচ্ছে তা বিবেচনা করেই বড়ো পর্দায় কাজ করব। তবে সিনেমায় নিয়মিত কাজ করার আগ্রহ নেই। নাটকে কাজ করতেই স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করি।

মডেল এবং অভিনেত্রী সারিকার সাবেক স্বামী মাহিম করিমের সঙ্গে টয়ার প্রেমের সম্পর্ক নিয়ে গুঞ্জন উঠেছিল কয়েক মাস আগে। ‘তোর মনে’ শিরোনামে একটি মিউজিক ভিডিওতে মাহিম করিম টয়াকে নিয়ে কাজ করেন। একসঙ্গে কাজ করতে গিয়ে তাদের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠেছে বলে শোনা যাচ্ছিল। ফেসবুকে পোস্ট করা তাদের একসঙ্গে কিছু ছবি এই গুঞ্জন আরো বাড়িয়ে দেয়। তবে তারা দুজনই এই গুঞ্জন নিয়ে তাদের স্পষ্ট মতামত জানিয়ে দেন। টয়া বলেন, মাহিম খুব ভালো একজন মানুষ। কাজ করতে গিয়ে তার সঙ্গে দারুণ বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক তৈরি হয়েছে। আমাদের বোঝাপড়াও ভালো আমরা শুধুই ভালো বন্ধু।

এ-বছরই বিয়ের পিঁড়িতে বসার ঘোষণা দিয়েছিলেন টয়া। কিন্তু এ-বছর বিয়ে হচ্ছে না বলে জানালেন টয়া। সবকিছু ঠিকভাবে গুছিয়ে নেওয়ার পরই বিয়ের পিঁড়িতে বসবেন তিনি। আরেকটু বেশি প্রস্তুতি নেওয়ার জন্য তার বিয়ে পেছানো হয়েছে। তবে আগামী বছর বিয়ে করবেন বলে নিশ্চিত করেছেন তিনি। পারিবারিকভাবে কথাবার্তাও চলছে। টয়া বলেন, বিয়ে সারাজীবনের ব্যাপার। সময় নিয়ে সবকিছু গুছিয়ে তারপরই বিয়ে করতে চাই।

ইতোমধ্যে দুই পরিবারের সদস্যরা আমাদের বিয়েতে সম্মতি দিয়েছেন। পুরোদমে বিয়ের প্রস্তুতি চলছে। ধারণা করা হয়েছিল এ-বছরেই সব প্রস্তুতি শেষে বিয়ের পর্ব সারা যাবে। কিন্তু বাস্তবতা হলো এ-বছর আমাদের বিয়ে হচ্ছে না। কারণ সবকিছু গুছিয়ে নেওয়ার জন্য আরো কিছু সময়ের প্রয়োজনীয়তা অনুভব করছেন দুই পরিবারের সদস্যরা। আগামী বছর অবশ্যই আমার বিয়ে হবে এবং তা বছরের শুরুতেই। বিয়ের তারিখ চূড়ান্ত হলে আমি নিজেই সবাইকে জানাবো। তখন আমার হবু বরকেও সবার সঙ্গে পরিচয় করিয়ে দেবো। তবে, তার আগে আমার হবু বর সম্পর্কে মুখ খুলছি না আমি। তবে আমার বর মিডিয়ার সঙ্গে জড়িত নন, তিনি পেশায় ব্যবসায়ী।

বিনোদনজগতে কাজ করতে এসে বিশেষ স্মৃতি প্রসঙ্গে জানতে চাইলে টয়া বলেন, যখন দেখি ভক্তেরা খুব প্রশংসা করে বা শুটিং করার সময় যখন ভক্তেরা এসে অটোগ্রাফ চায় তখন খুবই ভালো লাগে। আবার অনেক সময় দেখা গেছে, কোনো একটা কাজে আমাকে নেওয়ার পরে আবার মানা করে দেওয়া হলো।

তখন তারা হয়ত বলছে যে, আমার থেকে অন্য আরেকজন ওই চরিত্রে বেশি ভালো করতে পারবে। এই ধরনের বিষয়গুলো যখন ঘটে তখন খুব কষ্ট হয়। এমন কিছু দুঃখের স্মৃতিও আছে। এরকম ঘটনা ঘটার পর তখন মনে হয় নিজেকে এমনভাবে তৈরি করব যেন সবরকম চরিত্রেই নিজেকে উপযুক্ত বলে প্রমাণ করতে পারি।

মিডিয়ায় কাজ করতে এসে পরিবারের কাছ থেকে সবসময়ই অনেক সহযোগিতা পেয়েছেন টয়া। বাবা-মা সবসময়ই তাকে উৎসাহ দেন। বন্ধুরাও খুব সহযোগিতা করে। যেকোনো কাজের ক্ষেত্রেই বন্ধুদের সঙ্গে পরামর্শ করে নেন তিনি। সবার উৎসাহ নিয়ে বিনোদন জগতে ছুটে চলেছেন দুরন্ত টয়া।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here