Home ত্বকের যত্ন ত্বকের যত্ন

ত্বকের যত্ন

588
0
SHARE

 

গরমে ত্বক সুন্দর রাখুন

ডা. তাওহীদা রহমান ইরিন

এখন ভীষণ গরম। আর পাল্লা দিয়ে বেড়েই চলেছে রোদের তীব্রতা। রোদ ও ধুলাবালিতে সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে আমাদের ত্বক। যারা চাকরিজীবী বা প্রয়োজনে দীর্ঘ সময় রোদে থাকেন, ত্বকের প্রতি অতিরিক্ত উদাসীন, তারাই ক্ষতির শিকার হন বেশি। রোদে রয়েছে ভিটামিন-ডি, যা ত্বকের পুষ্টি জোগায়। কিন্তু দীর্ঘ সময় ধরে রোদে থাকাও ত্বকের জন্য ক্ষতিকর। রোদের ক্ষতিকর অল্ট্রা ভায়োলেট রশ্মি ত্বকের ঔজ্জ্বল্য নষ্ট করে। তাই এই ঋতুতে ঘাম, ধুলাবালি, আল্ট্রা ভায়োলেট রশ্মি থেকে ত্বক রক্ষা করা অপরিহার্য। গরমে যতেœর অভাবে ত্বকে নানা ধরনের সমস্যা তৈরি হয়। অনেক সময় ত্বকের দাগ স্থায়ী হয়ে ওঠে, যা দেখতে দৃষ্টিকটু। এ অবস্থা থেকে মুক্তির জন্য প্রয়োজন আপনার অভ্যাসের পরিবর্তন। নিজেকে বদলে ফেলুন। ত্বকের প্রতি দৃষ্টি দিন। সামান্য কিছু সতর্কতা আপনার ত্বককে করবে আরো বেশি আকর্ষণীয়।

আমাদের ত্বকে রয়েছে ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র ছিদ্র আর ঘাম ও তেলগ্রন্থি। এই গ্রন্থিগুলো ঘাম, তেল, অপ্রয়োজনীয় পদার্থ ঘাম আকারে দেহ থেকে বের করে দেয়। রোদ ও গরম বেশি হলে এই গ্রন্থি ও ছিদ্র দিয়ে দূষিত পদার্থের সঙ্গে প্রয়োজনীয় লবণ, পানি দেহের বাইরে চলে যায়। পরিণামে প্রতিটি অঙ্গে রক্ত চলাচলে ব্যাঘাত ঘটে। ফলে ক্ষতিকর প্রভাবের শিকার হয় ত্বক ও চুল। ত্বকের আর্দ্রতা কমে যাওয়ায় ত্বকে ভাঁজ পড়ে যায়। ত্বকের গোড়ায় অসংখ্য লোমকূপ থাকে। আর্দ্রতার অভাবে লোমকূপগুলোয় ধুলাবালি জমে। সঠিকভাবে ঘাম, তেল নিঃসরণ হতে পারে না। ফলে লোমকূপের গোড়ায় রোগজীবাণু বাসা বাঁধে। লোমকূপের ছিদ্র বন্ধ হয়ে অক্সিজেন ঢুকতে পারে না। এতে ত্বকে ঘামাচির মতো কালচে, পোড়া, তামাটে বর্ণের বৃত্তে ভরে ওঠে। ত্বকের বিভিন্ন স্থানে ঝলসে যাওয়ার মতো হয়। এ পরিস্থিতিকে বলে হিট সিনকোপ।

যাদের ত্বক বাংলাদেশের আবহাওয়ায় বেশি ফরসা এবং রোদে পোড়ে বেশি, তাদের হিট সিনকোপ হওয়ার আশঙ্কা বেশি। হিট সিনকোপ থেকে রক্ষা পাওয়ার জন্য করণীয়Ñ

১. প্রচুর পরিমাণে পানি, টাটকা শাকসবজি, মৌসুমী ফল খান

২. ত্বকের যেকোনো সমস্যায় নখ দিয়ে চুলকাবেন না। পাতলা কাপড় বা তুলা দিয়ে চুলকাতে পারেন

৩. ত্বক ও প্রায় প্রতিটি অঙ্গের জন্য তিতা খাবার [করলা, চিরতার রস] খুব উপকারী

৪. রোদে বের হওয়ার আগে অবশ্যই ছাতা ও সানস্ক্রিন ক্রিম ব্যবহার করবেন

৫. নিয়মিত গোসল ও ঘুম জরুরি

৬. দিনেরবেলা বের না হয়ে সম্ভব হলে প্রয়োজনীয় কাজগুলো রাতে বা সন্ধ্যায় সেরে ফেলুন

৭. বাইরে থেকে এসেই স্বাভাবিক পানিতে মুখ ধুয়ে ফেলুন। তারপর ফেসওয়াশ ব্যবহার করুন। সম্ভব হলে বার বার স্বাভাবিক পানিতে মুখ ধুয়ে ফেলুন। এতে ত্বকের ধুলাবালি, তেল, রোগজীবাণু পরিষ্কার হয়ে যাবে

৮. মেকআপ, ঘাম মিশে যেন তৈলাক্ত অবস্থার সৃষ্টি না করে সেদিকে দৃষ্টি দিন

৯. আরামদায়ক, ঢিলেঢালা, সাদা বা অন্য হালকা রঙের পোশাক পরুন। কালো পোশাকে রোদে গরম লাগবে বেশি। এতে দেহের অভ্যন্তরীণ তাপমাত্রা বেড়ে চেহারা বাজে দেখাবে হ

লেখক : ডার্মাটোলজিস্ট, শিওর সেল মেডিকেল [বাংলাদেশ] লিমিটেড

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here