1. amin@bol-online.com : আনন্দভুবন : আনন্দভুবন
  2. tajharul@bol-online.com : আনন্দভুবন : আনন্দভুবন
সোমবার, ০৬ জুলাই ২০২০, ০২:২৯ পূর্বাহ্ন
মোট আক্রান্ত

১৬২,৪১৭

সুস্থ

৭২,৬২৫

মৃত্যু

২,০৫২

  • জেলা সমূহের তথ্য
  • চট্টগ্রাম ৮,০৩৫
  • নারায়ণগঞ্জ ৫,৩২৩
  • কুমিল্লা ৩,৮৬৪
  • ঢাকা ৩,৩১৭
  • বগুড়া ৩,৩০৭
  • গাজীপুর ৩,২৭০
  • সিলেট ২,৭৩৪
  • কক্সবাজার ২,৫০৬
  • ফরিদপুর ২,৪৪৪
  • নোয়াখালী ২,২৬৪
  • মুন্সিগঞ্জ ১,৯৪৪
  • ময়মনসিংহ ১,৮৮৯
  • খুলনা ১,৭৮৬
  • বরিশাল ১,৫৫৭
  • নরসিংদী ১,২৮০
  • রাজশাহী ১,০৮৫
  • কিশোরগঞ্জ ১,০৮৩
  • চাঁদপুর ১,০৩৫
  • রংপুর ৯৮৩
  • লক্ষ্মীপুর ৯৭৪
  • সুনামগঞ্জ ৯৫৯
  • মাদারীপুর ৮৩২
  • গোপালগঞ্জ ৭৯৯
  • ফেনী ৭৮৬
  • ব্রাহ্মণবাড়িয়া ৭৩৩
  • দিনাজপুর ৬৭৫
  • টাঙ্গাইল ৬৬৯
  • শরীয়তপুর ৬৬৮
  • পটুয়াখালী ৬৩১
  • সিরাজগঞ্জ ৬২৭
  • হবিগঞ্জ ৬০৫
  • মানিকগঞ্জ ৬০৩
  • রাজবাড়ী ৫৬৩
  • নওগাঁ ৫৫৯
  • যশোর ৫৫৫
  • জামালপুর ৫৪২
  • কুষ্টিয়া ৫৩৫
  • নেত্রকোণা ৫৩৪
  • জয়পুরহাট ৪৫৪
  • পাবনা ৪৪৭
  • মৌলভীবাজার ৪১৪
  • নীলফামারী ৩৫৩
  • বান্দরবান ৩১২
  • ভোলা ৩০৩
  • গাইবান্ধা ২৮৮
  • রাঙ্গামাটি ২৫৬
  • শেরপুর ২৪৯
  • বরগুনা ২৪৬
  • নাটোর ২৪৪
  • খাগড়াছড়ি ২৩৭
  • পিরোজপুর ২১৪
  • চুয়াডাঙ্গা ২১২
  • ঠাকুরগাঁও ২০৬
  • ঝালকাঠি ১৯৩
  • বাগেরহাট ১৬৬
  • ঝিনাইদহ ১৬৫
  • সাতক্ষীরা ১৫৯
  • নড়াইল ১৫৩
  • কুড়িগ্রাম ১৪৯
  • পঞ্চগড় ১৪৬
  • লালমনিরহাট ১২৬
  • চাঁপাইনবাবগঞ্জ ১০১
  • মাগুরা ৯৭
  • মেহেরপুর ৫৯
ন্যাশনাল কল সেন্টার ৩৩৩ | স্বাস্থ্য বাতায়ন ১৬২৬৩ | আইইডিসিআর ১০৬৫৫ | বিশেষজ্ঞ হেলথ লাইন ০৯৬১১৬৭৭৭৭৭ | সূত্র - আইইডিসিআর | স্পন্সর - একতা হোস্ট

ঈদুল আজহা উপলক্ষে বাহারি রান্না

পোস্টকারীর নাম
  • বাংলাদেশ সময় রবিবার, ১৯ আগস্ট, ২০১৮
  • ১১৯২ বার ভিউ করা হয়েছে

তেহারি

উপকরণ

গরু বা খাসির মাংস ১ কেজি, আদাবাটা ২ টেবিল-চামচ, রসুনবাটা ১ টেবিল-চামচ, মরিচগুঁড়া ১ চা-চামচ, পেঁয়াজবাটা আধা কাপ, জায়ফল ও জয়ত্রিবাটা আধা চা-চামচ, গরুর মসলাগুঁড়া ১ চা-চামচ, কাঁচামরিচ ১০-১২টি, পোলাওয়ের চাল ১ কেজি, গরম পানি চালের দ্বিগুণ, এলাচ ৩-৪টি, দারুচিনি ৩ টুকরা, দুধ আধা কাপ, কেওড়া ১ চা-চামচ, তেল পরিমাণমতো, বেরেস্তা আধা কাপ, লবণ স্বাদমতো।

 

প্রণালি

মাংসের সঙ্গে আদা, রসুন ও পেঁয়াজবাটা, জায়ফল, জয়ত্রি, গরম মসলা দিয়ে মাখিয়ে চুলায় দিন। পরিমাণমতো পানি দিয়ে মাংস সিদ্ধ করুন। কাঁচামরিচ ও কেওড়া দিন। এবার মাংসগুলো ঝোল থেকে উঠিয়ে নিন। এবার এই ঝোলে দুধ ও চালের দিগুণ পানি দিয়ে ফুটে উঠলে চাল, এলাচ, দারুচিনি দিন। এরপর পানি শুকিয়ে কিছুক্ষণ রেখে গরম গরম পরিবেশন করুন।

রেসিপি : হুমায়রা নীলা

 

কলিজার ঝাল পোলাও

উপকরণ

রান্না করা কলিজার তরকারি ২ কাপ, পোলাওয়ের চাল ৫০০ গ্রাম, তেজপাতা ২টি, আদা ও রসুনবাটা ১ টেবিল-চামচ করে, পেঁয়াজকুঁচি আধা কাপ, বাটার অয়েল আধা কাপ, লবণ স্বাদমতো, পানি চালের দ্বিগুণ, কাঁচামরিচ ৮-৯টি।

 

প্রণালি

হাঁড়িতে বাটার অয়েল গরম করে তাতে পেঁয়াজকুঁচি ও তেজপাতা দিয়ে ভাজুন। আদা-রসুন দিন। এবার এতে আগে থেকে ধুয়ে রাখা চাল দিয়ে ভাজুন। চালের দ্বিগুণ পানি, লবণ ও কাঁচামরিচ দিন। চাল সিদ্ধ হয়ে পানি কমে এলে তাতে কলিজার কারি ঢেলে দিন। ২০ মিনিট দমে রেখে পরিবেশন করুন।

 

কিমা মাংসের মেলানি

উপকরণ

গরুর কিমা ২৫০ গ্রাম, মাংস ২৫০ গ্রাম, আদাবাটা ১ টেবিল-চামচ, রসুনবাটা ১ টেবিল-চামচ, তেজপাতা ২টি, জিরা ও ধনিয়াগুঁড়া ১ চা-চামচ করে, গুঁড়া মরিচ ২ টেবিল-চামচ, গুঁড়া হলুদ ১ চা-চামচ, আস্ত শুকনা মরিচ ৪-৫টি, এলাচ ২টি, লং ২টি, দারুচিনি ২ টুকরা, তেল পরিমাণমতো, লবণ স্বাদমতো।

 

প্রণালি

হাঁড়িতে তেল গরম করে তাতে পেঁয়াজকুঁচি দিয়ে ভাজুন। ভাজা হলে তেজপাতা, গরম মসলা দিন, বাটা ও গুঁড়া মসলা দিয়ে কষান। কষানো হলে মংস দিন। অল্প আঁচে রান্না করুন। মাংস কষানো হলে তাতে কিমা দিয়ে আরো ১৫ মিনিট কষান। আস্ত শুকনামরিচ দিন। পরিমণমতো পানি দিন। ঝোল তেলের উপর উঠলে নামিয়ে নিন।

রেসিপি : হুমায়রা নীলা

 

খাসির চপসি

উপকরণ

খাসির সিনার মাংস ১ কেজি, রাঁধুনী মাংসের মসলা ৩ টেবিল-চামচ, টকদই ১ কাপের ৪ ভাগের ১ ভাগ, লেবুর রস ১ টেবিল-চামচ, আদাবাটা ২ টেবিল-চামচ, রসুনবাটা ১ চা-চামচ, গোলমরিচগুঁড়া ১ চা-চামচ, পেঁয়াজ বেরেস্তা আধা কাপ, পেঁয়াজকুঁচি ১ কাপের ৪ ভাগের ১ ভাগ, ঘি আধা কাপ, লবণ স্বাদমতো।

 

প্রণালি

একটি পাত্রে টকদই আদা, রসুনবাটা, রাঁধুনী মাংসের মসলা, গোলমরিচগুঁড়া ও লবণ একসঙ্গে মিশিয়ে নিন। এই মসলার মিশ্রণে খাসির সিনার টুকরাগুলো মাখিয়ে রাখুন ১ ঘণ্টা। হাঁড়িতে ঘি দিয়ে তাতে পেঁয়াজকুঁচি ভেজে মাংসগুলো ঢেলে রান্না করুন ৩০ মিনিট। ৩০ মিনিট পর ঢাকনা তুলে মাংস নেড়ে আধা কাপ পানি ও বেরেস্তা দিন। ঢেকে আরও ২০ মিনিট অল্প আঁচে রান্না করুন। হয়ে গেলে নামিয়ে গরম গরম পরিবেশন করুন।

রেসিপি : হুমায়রা নীলা

 

জয়পুরি মাটন

উপকরণ

খাসির মাংস ১ কেজি, পেঁয়াজকুঁচি ১ কাপ, আদাবাটা দেড় টেবিল-চামচ, আস্ত ধনিয়া ১ টেবিল-চামচ, টকদই ১ কাপ, বড়ো এলাচ ৪টি, শুকনা মরিচকুঁচি ৪টি, তেজপাতা ২টি, ঘি ১ কাপের ৪ ভাগের ১ ভাগ, গুঁড়া মরিচ ১ টেবিল-চামচ, গুঁড়া হলুদ ১ চা-চামচ, লবণ স্বাদমতো।

 

প্রণালি

মাংসের সঙ্গে সমস্ত উপকরণ নিয়ে মাখিয়ে রাখুন ৪ ঘণ্টা। এবার ঘি গরম করে তাতে মাংস ঢেলে অল্প আঁচে রান্না করুন। মাংস সিদ্ধ হয়ে মাখামাখা হলে নামিয়ে পরিবেশন করুন।

রেসিপি : হুমায়রা নীলা

 

পাঞ্জাবি ক্ষীর

উপকরণ

বাসমতি চাল ১ লিটার, চিনি ১ কাপের চার ভাগের এক ভাগ, চিনি আধা কাপ, এলাচ ২টি, মাওয়া ১ কাপের ৪ ভাগের ১ ভাগ, মালাই  ১ কাপের ৪ ভাগের ১ ভাগ,  বাদামকুঁচি ৪ টেবিল-চামচ, কালো কিশমিশ পরিমাণমতো।

 

প্রণালি

হাঁড়িতে দুধ নিয়ে ফুটাতে থাকুন। বাসমতি চাল ভিজিয়ে রেখে হাত দিয়ে কচলে ভেঙে নিন। দুধ ফুটে উঠলে চাল দিন। চাল সিদ্ধ হলে চিনি দিন। ঘন হয়ে এলে মালাই, কিশমিশ, মাওয়া ও বাদামকুঁচি দিন। নামিয়ে ঠান্ডা হলে পরিবেশন করুন।

রেসিপি : হুমায়রা নীলা

 

গরুর মাংসের শুটকি

গরুর মাংসের শুটকি ২৫০ গ্রাম, পেঁয়াজকুঁচি ১ কাপ, আস্ত রসুন ৭-৮ কোয়া, আদাবাটা ১ টেবিল-চামচ, রসুনবাটা ১ চা-চামচ, জিরা ও ধনিয়াগুঁড়া ১ চা-চামচ করে, এলাচ ২টি, লং ২ টি, দারুচিনি ২ টুকরা, গুঁড়া হলুদ পরিমাণমতো, আস্ত শুকনা মরিচ ৫-৬টি, পানি পরিমাণমতো, লবণ স্বাদমতো।

 

প্রণালি

মাংসের শুটকিগুলো ভিজিয়ে রেখে ২০ মিনিট সিদ্ধ করে নিন। এবার পানি ঝরিয়ে ছেঁচে নিন। হাঁড়িতে তেল গরম করে পেঁয়াজকুঁচি দিয়ে ভাজুন। তাতে গরম মসলা ও বাটা মসলা দিয়ে কষান। কষানো হলে মাংস দিয়ে নেড়ে আধা কাপ গরম পানি দিয়ে রান্না করুন ২৫-৩০ মিনিট। মাংস তেলের উপর উঠলে নামিয়ে রাখুন। এবার অন্য একটি পাত্রে তেল গরম করে আস্ত শুকনা মরিচ ও আস্ত রসুন দিন। হালকা বাদামি হলে মাংস ঢেলে দিন। ১৫-২০ মিনিট দমে রেখে নামিয়ে পরিবেশন করুন।

রেসিপি : হুমায়রা নীলা

 

পেশোয়ারি মাটন

উপকরণ

খাসির মাংস ১ কেজি, সয়াবিন তেল ১০০ গ্রাম, পেঁয়াজকুচি ১০০ গ্রাম, আদাবাটা ৫০ গ্রাম, রসুনবাটা ৫০ গ্রাম, হলুদগুঁড়া ২০ গ্রাম, মরিচগুঁড়া ২০ গ্রাম, জিরাগুঁড়া ২০ গ্রাম, ধনিয়াগুঁড়া ২০ গ্রাম, টমেটোকুঁচি ১০০ গ্রাম, টকদই ১০০ গ্রাম এবং লবঙ্গ, এলাচ, দারুচিনি, লবণ ও তেজপাতা পরিমাণমতো।

 

প্রণালি

একটি পাত্রে খাসির মাংস দিয়ে ওই মাংসে পেঁয়াজ, আদা, রসুন, হলুদ, মরিচ, জিরা, ধনিয়া, লবণ, টমেটো, দই, গরম মসলা, তেল দিয়ে মাংস ভুনতে হবে। মাংস ১০ থেকে ১৫ মিনিট ভুনার পর যখন শুকিয়ে আসতে থাকবে তখন এর মধ্যে পরিমাণমতো পানি দিতে হবে এবং ঢেকে দিতে হবে, যেন মাংস তাড়াতাড়ি সিদ্ধ হয়। আধাঘণ্টা পর ঢাকনা খুলে চুলার আঁচ কিছুটা বাড়িয়ে দিতে হবে, যেন মাংসের পানি শুকিয়ে একটু ঘন হয়। মাংস সিদ্ধ হয়ে গেলে পাত্রে ঢেলে ওপরে ভাজা পেঁয়াজ দিয়ে পরিবেশন করুন।

রেসিপি : নাজিয়া ফারহানা

 

লেমন চিকেন বিরিয়ানি

উপকরণ

মুরগি দেড় কেজি, বাসমতি অথবা পোলাওয়ের চাল ১ কেজি, পেঁয়াজকুচি ১ কাপ, আদাবাটা ২ টেবিল-চামচ, রসুনবাটা ২ টেবিল-চামচ, বিরিয়ানির মসলা ৩ টেবিল-চামচ, টকদই ৪ টেবিল-চামচ, মরিচগুঁড়া দেড় টেবিল-চামচ, পুদিনাপাতাবাটা আধা টেবিল-চামচ, ধনেপাতা বাটা ১ টেবিল-চামচ, কাঁচামরিচবাটা ১ টেবিল-চামচ, সরিষার তেল ১ কাপের ৪ ভাগের এক ভাগ, সয়াবিন তেল ১ কাপের ৪ ভাগের এক ভাগ, [মুরগি রান্নার জন্য], ঘি ২ টেবিল-চামচ, লবণ স্বাদমতো, গরম পানি ১৫ কাপ, এলাচ ৩টি, দারুচিনি ১ টুকরা।

 

প্রণালি

রান্নার আগে চাল ধুয়ে পানিতে ভিজিয়ে রাখতে হবে [বাসমতি-চাল হলে ৪০ মিনিট আর পোলাওয়ের চাল হলে ২০ মিনিট]। তেল গরম করে পেঁয়াজকুচি হলকা বাদামি করে ভেজে এর মধ্যে আদা ও রসুনবাটা এবং লবণ দিয়ে কষিয়ে নিন। টকদই, টমেটো, বিরিয়ানির মসলা, শুকনা মরিচগুঁড়া ও সামান্য পানি দিয়ে কষিয়ে মুরগির মাংসের টুকরাগুলো দিয়ে দিন। এবারে মাংস ভালোভাবে কষিয়ে সিদ্ধ হওয়ার জন্য পানি দিন। ভুনা ভুনা করে নিতে হবে। মাংস রান্না হলে ধনিয়া ও পুদিনাপাতা এবং কাঁচামরিচবাটা দিয়ে চুলা বন্ধ করে দিন। চাল যে-পরিমাণ তার দ্বিগুণ থেকে একটু কম পানি নিতে হবে, কারণ মাংসের মধ্যে ঝোল আছে। এবারে বিরিয়ানি রান্নার জন্য হাঁড়িতে সরিষার তেল, এলাচ ও দারুচিনি দিয়ে ভিজিয়ে রাখা চাল পানি ঝরিয়ে দিয়ে দিতে হবে। চাল ৭-৮ মিনিট নেড়ে নেড়ে কষাতে হবে। যখন ভাজা ভাজা হয়ে যাবে তখন গরম করে রাখা পানি ও লবণ দিয়ে দিতে হবে। পানি ফুটলে ১০ মিনিট পর চাল যখন প্রায় ৪০ ভাগ সিদ্ধ হয়ে যাবে তখন রান্না করা মাংস ও কাঁচামরিচ দিয়ে চালের সঙ্গে মিশিয়ে দিতে হবে। সাবধানে মেশাতে হবে, নইলে চালগুলো ভেঙে যাবে। ২৫ মিনিট ঢেকে রান্না করতে হবে। নামানোর আগে উপর দিয়ে ঘি ছড়িয়ে দিন। গরম গরম পরিবেশন করুন।

রেসিপি : নাজিয়া ফারহানা

 

জর্দা

উপকরণ

১ প্যাকেট জরদা মিক্স, পানি ২ থেকে আড়াই কাপ, চিনি ১ কাপ [এতে হালকা মিষ্টি হবে। বেশি মিষ্টি খেলে আরও আধাকাপ দিতে পারেন], এলাচ ও দারুচিনি ২টা করে, ১টা বড়ো তেজপাতা, ঘি ৪ টেবিল-চামচ, গোলাপজল কয়েক ফোঁটা, জর্দার রং পরিমাণমতো।

 

প্রণালি

প্রথমে চাল পানিতে ভিজিয়ে রাখুন আধা ঘণ্টা। এবার চাল ভালো করে ধুয়ে পানি ঝরিয়ে নিন। এবার একটা হাঁড়িতে চাল, দুই থেকে আড়াই কাপ পানি, রং, এলাচ, দারুচিনি আর তেজপাতা দিয়ে চুলায় বসিয়ে দিন। মাঝারি আঁচে রাখবেন। ১০ মিনিটের মধ্যে পানি শুকিয়ে যাবে। পানি শুকিয়ে ভাত ফুটে উঠলে চিনি দিয়ে দিন। এবার চুলায় একটা তাওয়া দিয়ে তার উপর হাঁড়িটা বসিয়ে দিন। ২০-৩০ মিনিটের মধ্যে চিনি শুকিয়ে যাবে। জর্দা রান্নার সময় বেশি নাড়াচাড়া করবেন না। বেশি নাড়লে জর্দা ভরতা হয়ে যাবে। নাড়লেও খুব আস্তে আস্তে নাড়বেন। চিনি শুকিয়ে গেলে ঘি আর গোলাপজল দিয়ে হাল্কা নেড়ে চুলায় ৫ মিনিট রেখে নামিয়ে ফেলুন। বড়ো প্লেটে জর্দাগুলো ছড়িয়ে ফ্যানের নিচে রেখে ঠান্ডা করুন। এতে জর্দা ঝরঝরে হবে। এবার মিষ্টি, মালাই, বাদাম, মোরব্বা দিয়ে পরিবেশন করুন।

রেসিপি : নাজিয়া ফারহানা

 

বিফ ভিন্দালু

উপকরণ

গরুর মাংস ১ কেজি, রসুন ছেঁচা আধা কাপ, আদাবাটা ১ টেবিল-চামচ, জিরা আস্ত আধা টেবিল-চামচ, টমেটোকুঁচি ১ কাপ, কাঁচামরিচ ফালি ৬-৭টি, ধনিয়াপাতাকুঁচি ১ কাপের ৪ ভাগের ১ ভাগ, গরম মসলাগুঁড়া আধা চা-চামচ, ধনিয়াগুঁড়া ১ চা-চামচ, লবণ স্বাদমতো, হলুদগুঁড়া আধা চা-চামচ, মরিচগুঁড়া ১ চা-চামচ, টকদই সামান্য, গোলমরিচ আস্ত ৪-৫টি, তেজপাতা ২টি, দারুচিনি, এলাচ ও কালো এলাচ ৩টি করে, পেঁয়াজকুঁচি আধা কাপ, তেল ১ কাপের ৩ ভাগের ১ ভাগ।

প্রণালি

প্রথমে কড়াইয়ে তেল দিয়ে পেঁয়াজ দিন, হাল্কা ভাজা হলে ছেঁচা রসুন, আদাবাটা, টমেটোকুঁচি, দারুচিনি এলাচ ও কালো এলাচ দিন। একটু নাড়া দিয়ে মাংস ঢেলে দিন। মাংসে লবণ, মরিচ, হলুদগুঁড়া, ধনিয়াগুঁড়া, আস্ত জিরা দিয়ে ভালো করে রান্না করুন। মাংস আধা সিদ্ধ হয়ে এলে গরম মসলাগুঁড়া, তেজপাতা ও গোলমরিচ দিয়ে কষান, কষানো হয়ে তেল উঠে এলে ঘন টকদই দিন। তারপর মাংস হয়ে এলে লাল সবুজ কাঁচামরিচ ও ধনিয়াপাতা দিন, ভালো করে নেড়ে নামিয়ে পরিবেশন করুন।

রেসিপি : হুমায়রা নীলা

 

 

বিফ চিলি

উপকরণ

মাংস জুলিয়ান কাটা ১ কাপ, আদাবাটা ১ চামচ, রসুনবাটা ১ চামচ, সয়াসস ১ টেবিল-চামচ, ভিনেগার ১  টেবিল-চামচ, গোলমরিচগুঁড়া আধা চামচ, পেঁয়াজ কিউব করে কাটা ১ কাপ, ক্যাপসিকাম ১ কাপ, ডিম একটি, কর্নফ্লাওয়ার ২ চামচ, লবণ পরিমাণমতো, তেল ১ কাপের ৪ ভাগের ১ ভাগ ।

 

প্রণালি

প্রথমে মাংসে সামান্য, আদা, রসুন, সয়াসস, ভিনেগার ৩ কাপ পানি দিয়ে সিদ্ধ করে নিতে হবে। এবার প্যানে তেল দিয়ে তাতে আদা, রসুন দিয়ে সিদ্ধ করা মাংস ও পেঁয়াজ দিতে হবে। এখন সয়াসস, ভিনেগার, লবণ দিয়ে ডিম ফেটে দিয়ে গোলমরিচগুঁড়াও দিয়ে দিতে হবে। এইবার ক্যাপসিকাম দিয়ে কর্নফ্লাওয়ার পানিতে গুলে উপরে দিয়ে নামিয়ে নিন।

রেসিপি : নাছরিন আক্তার সুমি

 

 

কাশ্মীরি দুরানি কাবাব

উপকরণ

মাংস কিউব করে কাটা ২ কাপ, আদাবাটা ১ চামচ, লবঙ্গ, এলাচ, দারুচিনিগুঁড়া ১ চামচ করে, পেঁয়াজ লম্বা কুঁচি [বেরেস্তা] ১-৩ কাপ, ছোট পেঁয়াজ আস্ত আধা কাপ, জাফরান সামান্য, বাদামবাটা ১ টেবিল-চামচ, জিরা, ধনেবাটা আধা টেবিল-চামচ, লবণ প্রয়োজনমতো, শুকনামরিচগুঁড়া ১ চামচ, জায়ফলগুঁড়া অল্প, দই আধা কাপ, ডিম ৬টি, পেঁয়াজবাটা ২ টেবিল-চামচ, রসুনবাটা আধা চা-চামচ, নারকেলবাটা ১ টেবিল-চামচ, তেল ও ঘি ১-২ কাপ।

 

প্রণালি

জাফরান দুধে ভিজিয়ে রাখুন। মাংস মসলা দিয়ে মেরিনেট করে ১ ঘণ্টা রেখে দিন। এবার ডিম পুডিং-এর মতো করে বসিয়ে চারকোনা করে কেটে নিন। এখন কাঠিতে মাংস, পেঁয়াজ, ডিমের পিস দিয়ে গেথে নিন। অন্য একটি হাঁড়িতে তেল ও সব বাটামসলা দিয়ে কষিয়ে নিন। এখন গেঁথে রাখা কাঠি দিয়ে দুধে ভেজানো জাফরান দিয়ে দমে রাখুন। এরপর নামিয়ে পরিবেশন করুন মজাদার কাশ্মীরি দুরানি কাবাব।

রেসিপি : নাছরিন আক্তার সুমি

 

কাঠি গোস্ত

উপকরণ

গরুর মাংস ১ কাপ, পেঁয়াজ ফালি করে কাটা আধা কাপ, আদা, রসুন ১ চামচ করে, নারকেলবাটা ১ চামচ, বাদামবাটা ১ চামচ, গরমমসলাগুঁড়া ১ চা-চামচ, পেঁপেবাটা ১ চা-চামচ, টকদই ১ কাপের ৪ ভাগের ১ ভাগ, লবণ পরিমাণমতো, সরিষার তেল ২-৩ টেবিল-চামচ, লবণ পরিমাণমতো, ডিম ১টি, ব্রেডক্রাম পরিমাণমতো, কাঠি পরিমাণমতো, তেল ভাজার জন্য।

 

প্রণালি

প্রথমে মাংস পাতলা ছোট ছোট করে কেটে নিয়ে তাতে তেল, ডিম, পেঁয়াজ, ব্রেডক্রাম বাদে সব উপকরণ দিয়ে মাখিয়ে ১ ঘণ্টা মেরিনেট করে রাখতে হবে। এখন কাঠিতে মাংস ও পেঁয়াজ দিয়ে পরপর গেঁথে নিতে হবে, তারপর ডিম ও ব্রেডক্রাম দিয়ে ভেজে নিতে হবে।

রেসিপি : নাছরিন আক্তার সুমি

 

গরুর কালো ভুনা

উপকরণ

গরুর মাংস ১ কেজি, জিরা, হলুদ, ধনিয়া, পোস্তদানাবাটা ১ চা-চামচ করে, আদাবাটা ২ টেবিল-চামচ, রসুনবাটা ১ টেবিল-চামচ, নারকেল, বাদামবাটা ১ টেবিল-চামচ করে, পেঁয়াজকাটা আধা কাপ, জায়ফল, জয়িত্রিগুঁড়া আধা চা-চামচ,  তেল আধাকাপ,  লবণ পরিমাণমতো।

 

প্রণালি

মাংসে সব মসলা মাখিয়ে নিন। এখন প্যানে তেল দিয়ে তাতে পেঁয়াজ লাল করে ভেজে নিন। এখন মাখানো মাংস দিয়ে কষিয়ে নিন। এরপর পানি দিয়ে সিদ্ধ করে পানি শুকিয়ে গেলে নামিয়ে নিন। এখন প্যানে আবার তেল দিয়ে মাংস দিয়ে অল্প আঁচে বসিয়ে রাখুন। একটু পরপর নেড়ে দিন, মাংস ভাজতে ভাজতে লাল হয়ে এলে নামিয়ে পরিবেশন করুন।

রেসিপি : নাছরিন আক্তার সুমি

 

কড়াই গোস্ত

উপকরণ

গরুর মাংস ১ কেজি, পেঁয়াজকুচি ১ কাপ, আদা-রসুনবাটা ১ টেবিল-চামচ, টমেটোকুচি ১ কাপের ৩ ভাগের ১ ভাগ, গরম মসলা ১ চা-চামচ, লবণ স্বাদমতো, টকদই ঘন ১ টেবিল-চামচ, কড়াই মসলা ২ টেবিল-চামচ, হলুদগুঁড়া ১ চা-চামচ, মরিচগুঁড়া ১ চা-চামচ, তেল ১ কাপের ৩ ভাগের ১ ভাগ, আদাকুঁচি আধা টেবিল-চামচ, ঘি আধা টেবিল-চামচ, এলাচ, দারুচিনি, তেজপাতা।

কড়াই মসলা গুঁড়া : কাশ্মমীরি মরিচ ৪টি, ধনিয়া আস্ত ১ চা-চামচ, জিরা আস্তা দেড় চা-চামচ, কাসুরি মেথি পাতা ১ চা-চামচ, গোলমরিচ অল্প, পাপরিকা ১ চা-চামচ [টেলে গুঁড়া করে নিন]।

 

প্রণালি

প্রথমে তেল দিয়ে কড়াইয়ে পেঁয়াজ দিন, হালকা ভাজা হলে গরুর মাংস ঢেলে দিন। এর সঙ্গে আদা-রসুনবাটা, এলাচ-দারুচিনি-তেজপাতা, টমেটোকুঁচি দিয়ে রান্না করুন। আধা সিদ্ধ হলে মাংস, কড়াই মসলা ও গরম মসলা মিলিয়ে মাংসে ঢেলে দিন। মাংস ভালো করে কষিয়ে নিন। মাংস সিদ্ধ হলে নামিয়ে নিন। একটা কড়াইয়ে ঘি দিয়ে আদাকুঁচি দিন, আদা হাল্কা ভাজা হলে রান্না মাংস ঢেলে দিন। এবার পরোটা, নান অথবা পোলাওয়ের সঙ্গে পরিবেশন করুন।

রেসিপি : তাজরিন পিয়া

 

ভুনা চাপ

উপকরণ

গরুর মাংস ১ কেজি [চাপের গোস্ত], টকদই ১ কাপের ৪ ভাগের ১ ভাগ, পেঁয়াজ বেরেস্তা, পেঁয়াজকুঁচি আধা কাপ, আদা-রসুনবাটা ২ টেবিল-চামচ, গরম মসলাবাটা, এলাচ-দারুচিনি ২টা, জয়ফল জয়ত্রিবাটা, কালো গোলমরিচ, জিরাবাটা, ধনিয়াগুঁড়া, মরিচ ও হলুদগুঁড়া সামান্য, তেল [রান্নার জন্য ও ভাজার জন্য], কাঁচামরিচবাটা ১ চা-চামচ, লবণ স্বাদমতো।

 

প্রণালি

সব মসলা দিয়ে চাপের মাংস মেরিনেট করুন। ১৫-২০ মিনিট পর চুলায় বসিয়ে দিন পানি ছাড়া। মাংস সিদ্ধ হয়ে গেলে শুধু মসলা ও তেল উঠে এলে নামিয়ে নিন। এবার একটা করে চাপের মাংস গরম তেলে লাল করে ভেজে নিন, সব ভাজা হলে ওই তেলে চাপের মসলাটা দিয়ে ভেজে ভাজা চাপের ওপর দিয়ে পরিবেশন করুন।

রেসিপি : তাজরিন পিয়া

 

চাপলি কাবাব

উপকরণ

গরুর মাংসের কিমা আধা কেজি, ধনিয়া ও জিরাগুঁড়া, আদাবাটা, চাট মসলা আধা চা-চামচ করে, গরম মসলাগুঁড়া ১ চা-চামচ, আদা ও রসুনবাটা ১ টেবিল-চামচ, লবণ স্বাদমতো, বেদানার দানা ২ টেবিল-চামচ, পেঁয়াজ কুঁচি ২ টেবিল-চামচ, কাঁচামরিচ কুঁচি, ধনিয়াপাতা কুচি, টমেটোকুঁচি ২টি করে, ডিম ২টি, ময়দা ১ টেবিল-চামচ, চিলি ফ্লেক্স ১ চা-চামচ, তেল ভাজার জন্য।

 

প্রণালি

গরুর কিমায় সব মসলা দিয়ে মাখান। ১ ঘণ্টা মেরিনেট করুন। এরপর ভারি তাওয়া নিন, চুলায় গরম করে তেল দিয়ে চেপ্টা করে কাবাব দিন ভাজতে, মচমচে করে ভেজে পরিবেশন করুন।

রেসিপি : তাজরিন পিয়া

 

বিফ স্টেক

উপকরণ

গরুর স্টেক ২টা, সয়াসস ২ চা-চামচ, ওয়েস্টার সস ১ চা-চামচ, এইচপি সস ২ চা-চামচ, কালো গোলমরিচ আধা চা-চামচ, অলিভঅয়েল ৩ টেবিল-চামচ, লবণ স্বাদমতো, সরিষার পেস্ট ১ চা-চামচ, রসুনকুঁচি সামান্য, সিদ্ধ ভেজিটেবল পরিমাণমতো।

 

প্রণালি

গরুর স্টেকটা স্টেক হেমার দিয়ে হালকা থেতলে নিন। এরপর সব সস ও মসলা দিয়ে মেরিনেট করুন। ১ ঘণ্টা পর গ্রিল প্যানে অলিভ অয়েল দিয়ে স্টেক দিয়ে ঢাকনা দিন। স্টেক হয়ে এলে নামিয়ে নিন। অন্য ননস্টিক প্যানে অলিভ অয়েল দিয়ে সিদ্ধ ভেজিটেবল সতে করুন। গোলমরিচগুঁড়া, সিসনিই মসলা ও অল্প লবণ দিয়ে সতে করে নামিয়ে স্টেক দিয়ে পরিবেশন করুন।

রেসিপি : তাজরিন পিয়া

 

গোস্তের আচার

উপকরণ

গরুর গোস্ত আধা কেজি [হাড় ছাড়া মাংস ছোট করে কাটা], রসুন ছেচাঁ ২ টেবিল-চামচ, আদাবাটা আধা টেবিল-চামচ, এলাচ ২-৩টি, লবণ স্বাদমতো, গোলমরিচগুঁড়া সামান্য, সরিষার তেল ১ কাপ, পাঁচফোঁড়ন ১ টেবিল-চামচ, মরিচগুঁড়া আধা চা-চামচ, আস্ত শুকনামরিচ, গরম মসলাগুঁড়া সামান্য।

 

প্রণালি

গরুর গোস্ত ছোট করে কেটে নিন। ভালো করে পানি ঝরিয়ে শুকিয়ে নিন। এবার গোস্তে লবণ, লাল মরিচগুঁড়া, আদাবাটা ও গোলমরিচগুঁড়া দিয়ে মাখিয়ে নিন। তারপর ননস্টিক কড়াইয়ে সরিষার তেল দিয়ে ভালো করে গরম হলে পাঁচফোড়ন, রসুন ছেঁচা, শুকনামরিচ ভেঙে দিন। এরপর গোস্ত ঢেলে দিন। অল্প আঁচে নেড়ে নেড়ে কষাতে থাকুন। যখন লাল হয়ে যাবে গোস্তে সামান্য গরম মসলা ছিটিয়ে দিয়ে নামিয়ে নিন। কাচের বোতলে রেখে সংরক্ষণ করা যাবে। গোস্তের আচার মাঝে মধ্যে রোদে দিতে হবে। তা হলে ৬ মাস সংরক্ষণ করা যাবে।

রেসিপি : তাজরিন পিয়া

পোস্টটি শেয়ার দিন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরো আর্টিকেল
বেক্সিমকো মিডিয়া লিমিটেডের পক্ষে, ইকবাল আহমেদ কর্তৃক প্রকাশিত
Theme Customized BY Justin Shirajul